যেসকল তারকা আ’লীগের মনোনয়ন দৌড় থেকে বাদ পড়লেন

টুয়েন্টি ফোর সংবাদ ডটকম:

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন তালিকা থেকে ঝরে পড়ছেন অধিকাংশ অভিনেতা অভিনেত্রী তারকারা।ইতিমধ্যেই মনোনয়ন ফরম কিনেও চুড়ান্ত তালিকা থেকে তারা বাদ পড়েছেন। মনোনয়ন পত্র বিক্রির পর গত রোববার থেকে মনোনীত প্রার্থীদের চিঠি দেয়া শুরু করে আওয়ামী লীগ।

কিন্তু চুড়ান্ত বাছাই পর্বে শেষ পর্যন্ত পুরাতনদের মধ্যে সাবেক এমপি সংগীত শিল্পি মমতাজ ও অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর এবং নতুনের মধ্যে ও চিত্র নায়ক ফারুক ছাড়া আর কেউ মনোনয়ন পাননি।

এছাড়াও তালিকায় থাকা সাবেক মহিলা এমপি চিত্রনায়িকা সারাহ কবরী, দুইবার এর সংরক্ষিত আসনের এমপি ও প্রতিমন্ত্রী অভিনেত্রী তারানা হালিমসহ বাদ পড়েছেন আট জন নেতানেত্রী।

মনোনয়ন বঞ্চিত অন্যান্য শিল্পিরা হলেন অভিনেত্রী শমী কায়সার, রোকেয়া প্রাচী, চিত্রনায়ক শাকিল খান, অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান, অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল, ও অভিনেত্রী জ্যোতিকা জ্যোতি। এর মধ্যে শমী কায়সার ও রোকেয়া প্রাচী একই আসন ফেনী-৩ থেকে মনোনয়ন কিনেছিলেন।

বাংলা চলচ্চিত্রের এক সময়ের জনপ্রিয় নায়িকা সারাহ কবরী। ২০০৮ সালের নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসন থেকে এমপি নির্বাচিত হন। এবার তিনি ঢাকা-১৭ আসন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

এ আসন থেকে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন চলচ্চিত্র নায়ক আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। যদিও তিনি তার নির্বাচনী এলাকা গাজীপুর-৫ থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। সেখানে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে শিশু ও মহিলাবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকিকে।

২০০৯ ও ২০১৪ সালে জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনে এমপি হিসেবে নির্বাচিত হন টিভি অভিনেত্রী তারানা হালিম। এবার তিনি টাঙ্গাইল-৬ আসন থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। কিন্তু আওয়ামী লীগ তাকে বাদ দিয়ে এ আসন থেকে মনোনয়ন দিয়েছে খন্দকার আবদুল বাতেনকে।

অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী এর আগেও ২০১৪ সালে সংরক্ষিত নারী আসনের জন্য তিনি মনোনয়ন চেয়েও পাননি। এবার সরাসরি সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে ফেনী-৩ আসন থেকে তিনি ও অপর অভিনেত্রী শমী কায়সার মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। কিন্তু তাদের বাদ দিয়ে সেখানে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে মহাজোটের শরিক জাতীয় পার্টি প্রার্থীকে।

ঢাকা সিটি করপোরেশনের ৯নং ওয়ার্ডে (গাবতলী) বিএনপি থেকে দুই মেয়াদে কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছিলেন খল নায়ক অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল। তবে এবারের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে ঢাকা-১৪ থেকে তিনি মনোনয়নপত্র কেনেন। কিন্ত তাকে না দিয়ে এ আসনে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে আওয়ামী লীগের বর্তমান এমপি আসলামুল হককে।

এছাড়া চিত্রনায়ক শাকিল খান বাগেরহাট-৩ আসনের জন্য মনোনয়নপত্র কেনেন। সেই আসনে আওয়ামী লীগ মনোনয়ন দিয়েছে হাবিবুন্নাহারকে। অভিনেত্রী-মডেল জ্যোতিকা জ্যোতি ময়মনসিংহ-৩ থেকে মনোনয়নপত্র জমা দেন। সেখানে জোটের প্রার্থীকে মনোনয়ন দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক টাঙ্গাইল-১ আসন থেকে মনোনয়নপত্র জমা দেন। তবে সেখানে দলীয় মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান এমপি ও সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামীলীগ এর সংসদীয় বোর্ডের সদস্য জননেতা জনাব ড. আবদুর রাজ্জাক কে।

এবার একাদশ জাতীয় নির্বাচনে অনেক ভাবে যাচাই বাছাই করে অনেক হিসেব নিকেশ কষে আওয়ামীলীগ তাদের মনোনয়ন দিয়েছেন এতে করে অনেক হেব্বী ওয়েট আওয়ামীলীগের নেতারাও বাদ পরেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *